কবি আবু জাফর ওবায়দুলাহর ৮৩তম জম্নদনি আজ

✪প্রন্সি তালুকদার, বাবুগঞ্জ(বরশিাল) প্রতনিধি।ি। আমি কংিবদন্তরি কথা বলছ,ি আমি আমার র্পূবপুরুষরে কথা বলছৃিৃ।সাহত্যিাঙ্গনরে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র, কংিবদন্তীর কবি আবু জাফর ওবায়দুলাহ্’র ৮৩তম জম্নদনি আজ। তনিি ১৯৩৪ সালরে ৮ ফব্রেুয়ারি বরশিাল জলোর বাবুগঞ্জ উপজলোর বাহরেচর গ্রামে জম্নগ্রহন করনে। তার পতিা পাকস্তিানরে স্পকিার আবদুল জব্বার খান। আবদুল জব্বার খান বচিারক থাকার কারণে শক্ষিাজীবন বভিন্নি স্থানে কাট।ে সইে সুবাদে তনিি ১৯৪৮ সালে ময়মনসংিহ জলিা স্কুল থকেে মাধ্যমকি পাস করনে এবং উচ্চ মাধ্যমকিে র্ভতি হন ঢাকা কলজে।ে ১৯৫০ সালে উচ্চমাধ্যমকি পাস করে ঢাকা বশ্বিবদ্যিালয়ে র্ভতি হন এবং ১৯৫৩ সালে ইংরজেি সাহত্যি সম্মান ও ১৯৫৪ সালে স্নাতকোত্তর ডগ্রিী র্অজন করনে। লোক প্রশাসনওে ডপ্লিােমা ছলি তার। এরপর লন্ডনরে কমেব্রজি বশ্বিবদ্যিালয়, র্হাভারড বশ্বিবদ্যিালয়ে আর্ন্তজাতকি সর্ম্পক বষিয়ে গবষেণা করে ফলেোশপি পান ১৯৭৪ সাল।ে ১৯৫৪ সালে ঢাকা বশ্বিবদ্যিালয়ে ইংরজেি প্রভাষক পদে যোগ দনে। ১৯৫৭ সালে তনিি যোগ দনে পাকস্তিান সভিলি র্সাভসি।ে স্বাভাবকি নয়িমইে তার পদোন্নতি ঘটতে থাকে এবং সচবি হসিবেে বভিন্নি মন্ত্রণালয়ে কাজ করনে। ১৯৮২ সালে তনিি অবসর গ্রহণ করনে এবং বাংলাদশে সরকাররে মন্ত্রীসভায় যোগ দনে। কৃষি ও পানসিম্পদ মন্ত্রী হসিবেে ২ বছর দায়ত্বি পালনরে পর ১৯৮৪ সালে রাষ্ট্রদূত হয়ে চলে যান র্মাকনি যুক্তরাষ্ট্র।ে ১৯৯২ সালে আবু জাফর ওবায়দুলাহ এশয়িা প্যাসফিকি অঞ্চলরে অতরিক্তি মহাপরচিালক পদে যোগ দনে বশ্বি খাদ্য ও কৃষি সংস্থায় এবং ১৯৯৭ সালে তনিি ঐ সংস্থার পরচিালক হসিবেে অবসর গ্রহণ করনে। তনিি ঢাকায় ফরিে এসওে বসে থাকনেনি বরং একটি বসেরকারি সংস্থার চয়োরম্যান হসিবেে দায়ত্বি পালন করনে। র্কমরে ফাঁকে ফাঁকে আবু জাফর সাহত্যি র্চচা করতনে। মূলতঃ কবি হসিবেইে সাহত্যিাঙ্গণে র্সবাধকি পরচিতি তনি।ি তার রচতি কাব্য গ্রন্থরে মধ্যে রয়ছেে সাতনরী হার, কখনও রং কখনও সুর, কমলরে চোখ, আমি কংিবদন্তরি কথা বলছ,ি সহষ্ণিু প্রতীক্ষা, বৃষ্টি ও সাহসী পুরুষরে জন্য র্প্রাথনা, আমার সময়, নর্বিাচতি কবতিা, আমার সকল কথা, মসৃন কৃষ্ণ গোপাল প্রভৃত।ি এ ছাড়া অগ্রন্থতি গদ্যঃ কবি মাতৃক আমাদরে এই বাংলাদশে একটি উলখেযোগ্য গ্রন্থ। কবি আবু জাফর ওবায়দুলাহর গৃহণিী মা সালহো খাতুন অকালে মৃত্যুবরণ করায় তার পতিা বচিারপতি আব্দুল জব্বার খান দ্বতিীয় বয়িে করনে। নতুন মা তাদরে লালন করছেনে আপন মায়রে মতই। আবু জাফর ওয়াবদুলাহর এক ভাই ছলিনে হলডিে সম্পাদক এনায়তে উলাহ খান, আরকে ভাই সাংবাদকি সাদকে খান, র্বতমান সরকাররে বমিান ও র্পযটন মন্ত্রী রাশদে খান মনেন ও মুক্তযিুদ্ধরে সংগঠক শহীদুলাহ খান বাদলও আবু জাফর ওবায়দুলাহর ভাই। তাদরে একমাত্র বোন সাবকে মন্ত্রী সলেমিা রহমান। আবু জাফর ওবায়দুলাহর স্ত্রী মাহজাবীন খান। ঐ সংসারে একমাত্র ময়েে কাকাতুয়া এবং র্পূবরে সংসারে স্ত্রী মন’ির দুই পুত্র র্পাথ ও ততিাশ। কবি আবু জাফর ওবায়দুলাহ ১৯৭৯ সালে বাংলা একাডমেি সাহত্যি পুরস্কার এবং ১৯৮৫ সালে একুশে পদকে ভূষতি হন। ২০০১ সালরে ১৯ র্মাচ ঢাকায় মৃত্যুবরণ করনে প্রথতিযশা কবি আবু জাফর ওবায়দুলাহ।

(Visited 1 times, 1 visits today)





%d bloggers like this: