যৌনপল্লিতে এ কেমন তামাশা !

এ.কে.আজাদ:
রঙ্গরস আর যৌবন জ্বালা মেটাতেই পটুয়াখালীর যৌনপল্লিতে অসংখ্য যুবকের যাতায়াত। টাকার বিনিময়ে স্বল্প সময়ে চাহিদামত সেবা পেয়ে রীতিমত সন্তষ্ট খদ্দেরগন। কিন্ত যৌন পল্লিতে সম্প্রতি ঘটে গেছে এক ব্যতিক্রম তামাশা। আর এ ঘটনায় রীতিমত অবাক সংস্লিষ্টরা।

জানাগেছে, কুয়াকাটায় ঘুরতে আসা পর্যটক অরুন একটু বিনোদনের জন্য গিয়েছিল নিষিদ্ধ পল্লিতে। রুমা নামের একটি মেয়ের সাথে দরদাম করে চলে গেল রুমে। অরুনকে বিছানায় রেখে রুমা গেল বাথরুমে। রুমা বাথরুম থেকে বের হয়ে দেখলো অরুন বিছানায় নেই। হঠাৎ গেল কোথায়? অনেক খোজাখুজির পর অরুনকে পাওয়া গেল পাশের ঘরের আরেকটি রুমে। সেখানে মুন্নি নামের আরেক মেয়ের সাথে অরুন রঙ্গরসে ব্যস্ত। রুমা উপস্থিত হয়ে দাবী করলো অরুন তার মক্কেল। তাই আগে তার ভিজিট দিতে হবে। দুই পতিতার মধ্যে ঝগড়াঝাটি দেখে অরুন ভাবছে কি করবে। অবশেষে রুমা আর মুন্নিকে নিজের গলার স্বর্নের চেইন খুলে দিয়ে দুজনকে ভাগাভাগি করে নিতে বলে সন্তষ্ট করলো। দুজনের সাথেই আরো কিছুণ ডুবে রইলো ভালবাসার পরম সাগরে।

বের হয়ে বন্ধুদের সাথে ঘটনা খুলে বলতেই সবাই হাসিতে ফেটে পরলো। কারন অরুনে চেইন টি স্বর্নের নয়, এটি ছিল সিটি গোল্ড।

(Visited 1 times, 1 visits today)





%d bloggers like this: