১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, বৃহস্পতিবার

গৌরনদীতে ঘরবাড়ি গাছপালা ও আমন ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

image-here

শামীম মীর, গৌরনদী।।  ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে রোববার দুপুরে জেলার প্রতিটি উপজেলার কাঁচা ঘরবাড়ি, গাছপালা, আমন ক্ষেত, বিদ্যুত লাইন ও মাছের ঘেরের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বুলবুলের তান্ডবে জেলার গৌরনদী উপজেলার সরিকল শাহাজিরা  গ্রামে আঃরশিদ সরদারের ছেলে  ফারুক হোসেন সরদার    (৪০) নামের এক যুবক নিজ বসতঘরের নিচে চাঁপা পরে আহত। হুমায়ূন হাওলাদার ও সহিদুল ইসলাম বলেন তাদের গরু ছাগল মারা গেছে।  এছাড়া ও শাহাজিরা, সাকোকাঠী, মহিষা, সরিকল গ্রামে প্রায় শতাতিক ঘড় বাড়ী ও গরু ছাগল আহত হয়েছেন। এ ছাড়া বিভাগের চার জেলায় আরো পাঁচজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।
ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের রোববার দুপুরে গৌরনদীর মাহিলাড়া নামক এলাকার সড়কে গাছ উপরে পরে প্রায় তিন ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ ছিলো। এতে দূরপাল্লার ছেড়ে আসা পরিবহনগুলোর যাত্রীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে। পরে গৌরনদী মডেল থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গাছটি মহাসড়ক থেকে সরিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করে। ঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে পল্লী বিদ্যুতের। গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত জাহান জানিয়েছে, ঘূর্নিঝড় বুলবুলের তান্ডবে উপজেলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নিরুপণ করার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোববার দুপুর একটার পর থেকে শুরু হয়ে প্রায় বিশ মিনিটের ঘূর্ণিঝড়ে গৌরনদী উপজেলার গেরাকুল গ্রামের দিনমজুর আল-আমিন বেপারীর বসত ঘরের ওপর বিশাল আকৃতির গাছ উপরে পরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
এছাড়াও জেলার অধিকাংশ উপজেলার প্রায় দুই শতাধিক কাঁচা ঘরবাড়ির ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে। ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে কয়েক সহ¯্রাধীক গাছপালা উপরে পরেছে। কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে গত তিনদিনের বৃষ্টিতে ও রোববার দুপুরের ঝড়ে পাকা ও আধাপাকা আমন ক্ষেত এবং পানের বরজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
পল্লী বিদ্যুতের দায়িত্বশীয় সূত্রে জানা গেছে, রবিবারের ঘূর্ণিঝড়ে তাদের অধিকাংশ এলাকার লাইনের তারের ওপর গাছ উপরে পরে তার ছিড়ে গেছে। এতে তাদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রোববার সকাল থেকে পল্লী বিদ্যুতের পুরো এলাকায় বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। কবে নাগাদ বিদ্যুত লাইন সচল করা সম্ভব হবে তাও বলতে পারছেন না সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। বিদ্যুত লাইন বন্ধ থাকায় অধিকাংশ এলাকার মোবাইল নেটওর্য়াক বন্ধ হয়ে গেছে। বিদ্যুত সরবরাহ ও মোবাইল নেটওর্য়াক বন্ধ থাকায় মিডিয়া কর্মীদের সঠিক সময়ে সংবাদ পরিবেশন করতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ ছাড়া অধিক বৃষ্টির কারণে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় অধিকাংশ এলাকার মাছের ঘের ও পুকুর ডুবে মাছ বের হয়ে গেছে।
অপরদিকে বুলবুলের প্রভাবে জেলার  উপজেলার প্রায় চারশ’ বসতঘর ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ ছাড়া শাহাজিরা গ্রামের বেশ কিছু গবাদি পশুর আহত খবর পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাস বলেন, বসতবাড়ির বাইরে বাকাই ইউনিয়নে নিরঞ্জন বৈরাগী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভবন পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়েছে।
জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান জানান, পুরো ক্ষয়ক্ষতির তালিকা তৈরির জন্য সংশ্লিস্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ওই তালিকা না পাওয়া পর্যন্ত কি পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছেনা।
বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে বরিশালে একজন, বরগুনায় দুইজন, পটুয়াখালীতে একজন, পিরোজপুরে একজন ও ভোলায় একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। একইসাথে উপকূলীয় অঞ্চলে গাছপালা ভেঙে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পরেছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network