২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, রবিবার

সড়কটি খানাখন্দে ভরা।। ঘটছে নানা দূর্ঘটনা

আপডেট: আগস্ট ১৮, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সড়ক নয় যেন জলাশয় বাটাজোর-শরিকল সড়ক

শামীম মীর,গৌরনদী।। সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কের মধ্যকার বড় বড় গর্তে পানি জমে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ণ বাটাজোর-শরিকল সড়কে জলাশয়ের সৃষ্টি হচ্ছে। ছয় কিলোমিটারের পুরো সড়কটি জুড়ে ব্যাপক খানাখন্দের কারণে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট বড় অসংখ্য দূর্ঘটনা। বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়ে দাঁড়িয়েছে এ সড়কের ওপর নির্ভরশীল চলাচলকারী লোকাল বাস। ব্যাপক খানাখন্দের কারণে ইতোমধ্যে এ সড়কে ছোট ছোট যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে কয়েকশ’ পরিবারের সদস্যরা বেকার হয়ে পরেছেন। দীর্ঘদিন থেকে প্রতিনিয়ত এ সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হলেও বিষয়টি যেন দেখার কেউ নেই। ফলে ভূক্তভোগী এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। জরুরি ভিত্তিতে জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এলাকাবাসী স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
উপজেলা আ’লীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক শরিকল গ্রামের নাজিম উদ্দিন টিপু, শরিকল গ্রামের প্রধান শিক্ষক কমল কান্তি সরকার, হরহর গ্রামের সহকারী শিক্ষিকা মায়া রানী শিকদার, সরিকল বাজারের  ব্যবসায়ী মাসুম ,বরিশাল বিএম কলেজের ছাত্র আগুরপুর গ্রামে সাইদুল ইসলামসহ একাধিক বাসিন্দারা বলেন, প্রতিদিন এ সড়কটি দিয়ে গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর, শরিকল ও নলচিড়া ইউনিয়ন এবং বাবুগঞ্জ উপজেলার কয়েক হাজার বাসিন্দারা চলাচল করে থাকেন। বরিশাল জেলা শহর, গৌরনদী উপজেলা সদরে যাতায়াতের জন্য এসব এলাকার বাসিন্দাদের একমাত্র ভরসাই হচ্ছে বাটাজোর-শরিকল সড়ক। এ সড়কের ওপর নির্ভর করে দীর্ঘদিন থেকে এসব এলাকার লক্ষাধিক বাসিন্দাদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বরিশাল-শরিকল রুটে নিয়মিত বাস চলাচল করে আসছে। এছাড়াও ছোট ছোট যানবাহনে যাত্রী ও বিভিন্ন ধরনের মালামাল পরিবহন করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন এসব এলাকার শত শত পরিবারের সদস্যরা।
শরিকল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সান্টু বলেন, গত প্রায় ৪ বছর পূর্বে জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটি সংস্কারের সময় স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের এক প্রভাবশালী ঠিকাদার নিন্মমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করায় কয়েকদিনের মধ্যেই পুরো সড়কটি চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পরে। পরবর্তীতে আর কোন সংস্কার কাজ না হওয়ায় পিচ উঠে গিয়ে সড়কের মধ্যে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে পুরো সড়কটি দিয়ে যানবাহনতো দূরের কথা জনসাধারণের পায়ে হেঁটে চলাচলই অসম্ভব হয়ে পরেছে। এছাড়াও সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কের মধ্যে সৃষ্টি হওয়া গর্তে পানি জমে জলাশয়ের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে চরম দূর্ভোগে পরতে হচ্ছে এ সড়কে যাত্রীপরিবহন করা ছোট ছোট যানবাহনের। ভূক্তভোগী এলাকাবাসী জরুরি ভিত্তিতে জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এলাকাবাসী স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
বাটাজোর-শরিকল সড়কের বেহাল দশার কথা স্বীকার করে গৌরনদী উপজেলা এলজিইডি অফিসের প্রকৌশলী মোঃ অহিদুর রহমান জানান, সড়কটি সংস্কারের জন্য প্রকল্প তৈরি করে অনুমোদনের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network