১১ই আগস্ট, ২০২০ ইং, মঙ্গলবার

শিরোনাম
আগৈলঝাড়ায় কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য কর্মীর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ। বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার এর উদ্যোগে জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে চারা বিতরন বরিশালে গরু চুরির করে প্রাইভেটকারে পালানোর সময় চোর আটক ভাদ্র মাসের বন্যা নিয়ে সতর্ক থাকতে বললেন প্রধানমন্ত্রী যারা প্রতিহিংসা ছড়িয়েছে তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা ষড়যন্ত্রের অংশ দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে ভেঙে দিয়েছে সরকার : রিজভী ২মিনিট ৫ সেকেন্ডে সব রাজধানী ও ১৪-১৬ সেকেন্ডে সবজেলার নাম বলে(ভিডিও) নতুন রেকর্ড- হাসিব আহম্মেদ ধোবাউড়ায় “বিট পুলিশিং কার্যক্রম” নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত গাজীপুরে সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালাচ্ছে টাস্কফোর্স

শিশু ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ, মোবাইলের লক খুলতে গিয়ে ধরা

আপডেট: ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

অনলাইন ডেস্ক: পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের চিত্র মোবাইলে ভিডিও ধারণ করার অভিযোগে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে মিজানুর রহমান নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত মিজানুর সোনাহাট ইউনিয়নের বানুরকুটি গ্রামের পান মামুদের (মনছুর) ছেলে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার সোনাহাট ইউনিয়নে বানুরকুঠি গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ছাত্রীর পরিবার বাদি হয়ে মিজানুরের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করে। এলাকাবাসী, পুলিশ ও মামলার স্বাক্ষী শিশুটির চাচা জানান, মাসখানেক আগে শিশুটি মিজানুরের দোকানে কেনাকাটা করতে গেলে সে কৌশলে তাকে দোকানের ভেতর ডেকে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে এবং মোবাইলে তা ভিডিও ধারণ করে। সেই ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে পরবর্তীতে একাধিকবার ধর্ষণ করে। মোবাইল ফোনই মিজানুরের জন্য কাল হয়ে দাড়ায়। সে তার মোবাইল ফোনের পাসওয়ার্ড লক খুলতে না পেরে প্রতিবেশি এক যুবককে লক খুলে দেয়ার জন্য ডেকে নেয়। ওই যুবক মোবাইল মেকানিকের সহায়তায় লক খুলে মিজানুরের ফোনে ধর্ষণের একাধিক ভিডিও দেখতে পেয়ে শিশুটির বাবাকে বিষয়টি জানায়। শিশুটি মিজানুরের ভাতিজির বান্ধবী। বিবাহিত মিজানুরের দুটি সন্তানে রয়েছে। সে সোনাহাট স্থলবন্দর এলাকায় তার বাড়ীতে মুদি দোকান চালায়।

ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি ইমতিয়াজ কবির জানান, ধর্ষণের শিকার শিশুটির মেডিক্যাল চেকাপ সম্পন্ন হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মিজানুর ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। মোবাইলে ভিডিও ধারণের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।’ সত্যতা প্রমানিত হলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পৃথক আইনে মামলা দায়ের করা হবে।
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network