৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং, শুক্রবার

রাঙ্গাবালীতে যাত্রীবাহী স্পিডবোট ডুবে নিখোঁজ ৫

আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার কোড়ালিয়া থেকে পানপট্টির উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া একটি যাত্রীবাহী স্পিডবোট ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে চালকসহ ১৩ যাত্রী জীবিত উদ্ধার হলেও পাঁচজন নিখোঁজ রয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার আগুনমুখা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।জানা গেছে, বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট থেকে ১৭ জন যাত্রীসহ আহম্মেদ এন্টারপ্রাইজের মালিকানাধীন একটি স্পিডবোট গলাচিপার পানপট্টির উদ্দেশে ছেড়ে যায়। পথিমধ্যে আগুনমুখা নদীর মাঝখানে ঢেউয়ের তোড়ে তলা ফেটে ১৭ যাত্রী এবং একজন চালকসহ স্পিডবোটটি তলিয়ে যায়।

পরে দেড় ঘণ্টা পর দুইটি স্পিড বোট উদ্ধার অভিযান চালিয়ে চালকসহ ১৩ জন যাত্রীকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। পাঁচজন এখনও নিখোঁজ রয়েছে। তাদের উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান স্পিডবোট কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার রাত ৭টায় এ রিপোর্ট পাঠানোর আগপর্যন্ত তাদের কাউকে উদ্ধারের খবর পাওয়া যায়নি।

কোড়ালিয়া লঞ্চঘাটের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, এক ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও স্পিডবোটটি গন্তব্যে পৌঁছায়নি। পরে স্পিডবোট কর্তৃপক্ষ দেড় ঘণ্টা পর উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

উদ্ধার হওয়া রাঙ্গাবালীর বাহেরচর কৃষি ব্যাংক শাখার ম্যানেজার দেলোয়ার হোসেন জানান, প্রচণ্ড ঢেউয়ের কবলে পড়ে স্পিডবোটের সামনের অংশের তলা ফেটে যায়।

উদ্ধার হওয়া একাধিক যাত্রী জানান, আমরা বারবার চালককে স্পিডবোট ঘুরিয়ে ঘাটে নিয়ে আসতে বলেছি; কিন্তু সে আমাদের কথা শোনেনি।

কোড়ালিয়া-পানপট্টি নৌরুটের আহম্মেদ এন্টারপ্রাইজের কোড়ালিয়া ঘাটের ম্যানেজার বশির উদ্দিন বলেন, নিখোঁজদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, খবর পেয়েছি; আমরা ঘাটে যাচ্ছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, ১৭ জন যাত্রী নিয়ে স্পিডবোট ছাড়ার কথা নয়। বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে স্পিডবোট ছাড়াও ঠিক হয়নি। আমি ঘাটে এসেছি, খোঁজখবর নিচ্ছি।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network